আরবিতেও কথা হোক, চাইছেন ফিফা সভাপতি

আরবিতেও কথা হোক, চাইছেন ফিফা সভাপতি

গতকাল ছিল জাতিসংঘের বিশ্ব আরবি ভাষা দিবস। ফুটবল বিশ্বের জন্য গুরুত্বপূর্ণ আরেকটি তথ্য হলো, গতকালই শেষ হয়েছে ফিফার আয়োজনে অনুষ্ঠিত প্রথম আরব কাপ। এমন দিনে আরবি ভাষাভাষী দেশগুলোর জন্য অনুপ্রেরণাদায়ী এক খবর আসছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার দিক থেকে।

আরবিকে ফিফার আনুষ্ঠানিক ভাষাগুলোর একটি হিসেবে গ্রহণের প্রস্তাব করবেন ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো, এমনটাই জানাচ্ছে ফিফার ওয়েবসাইট। আরবি ভাষা দিবস আর আরব কাপের সমাপ্তির কারণেই গতকাল ঘোষণাটা এসেছে। ফিফা জানাচ্ছে, আরব ভাষাভাষী ২০টি দেশের ৪৫ কোটি মানুষের ভাষা তো বটেই, আরবি ভাষা বিশ্বজুড়ে আরও অনেক মানুষেরও প্রিয়। সে দিক বিবেচনায় রেখেই আরবিকে ফিফার আনুষ্ঠানিক ভাষাগুলোর একটি করে নেওয়ার ইচ্ছা ফিফা সভাপতি ইনফান্তিনোর।

এখন পর্যন্ত ফিফার আনুষ্ঠানিক ভাষা চারটি। ইংরেজি তো বটেই, এর পাশাপাশি ফরাসি, স্প্যানিশ ও জার্মান ভাষাকেও নিজেদের দাপ্তরিক ভাষা হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। পঞ্চম ভাষা হিসেবে আরবিকেও আপন করে নেবে ফিফা? সময়ই বলবে। আরবিকে দাপ্তরিক ভাষাগুলোর একটি হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হবে, আরব দেশগুলোর সঙ্গে ফিফার সাম্প্রতিক সমন্বিত কার্যক্রমের আরেকটি ধাপ। আরব দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক ও পারস্পরিক সহযোগিতা বাড়াতে সম্প্রতি অনেক সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফিফা। আগামী বছরে ফিফার বিশ্বকাপ হবে কাতারে। সেই কাতারেই এবার নিজেদের আয়োজনে প্রথমবার আরব কাপ আয়োজন করেছে ফিফা।

১৯৬৩ সালে প্রথম শুরু হলেও আরব কাপ কখনোই নিয়মিত ছিল না। এবারের আগপর্যন্ত সব মিলিয়ে ৫৮ বছরে টুর্নামেন্টটা আয়োজিত হয়েছেই মাত্র ১১ বার। এই শতকে হয়েছে তিনবার, সর্বশেষ ২০১২ সালে।